কলকাতায় ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় মাদরাসাশিক্ষককে ট্রেন থেকে ধাক্কা

ফাতেহ ডেস্ক

ভারতে মুসলিমদের ওপর বিজেপি তথা রামভক্তদের অন্যায় অত্যাচার বেড়েই চলেছে। উত্তরপ্রদেশ বা বিহার নয়, এবার কলকাতায় রামভক্তদের দ্বারা আক্রান্ত হয়েছেন মাদরাসাশিক্ষক এক মুসলিম যুবক। ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে রাজি না হওয়ায় তাঁকে ট্রেন থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

ভিকটিম ওই মাদরাসাশিক্ষকের অভিযোগ, চলন্ত ট্রেনে তাঁকে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে জোরাজোরি শুরু করে একদল যুবক। কিন্তু, তিনি তাতে সম্মত না হওয়ায়, তাকে চলন্ত ট্রেন থেকেই ফেলে দেওয়া হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবক এতে আহত হয়েছেন। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। তবে ঘটনার নেপথ্যে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে অস্বীকার করা নাকি অন্য কোনও কারণ, তা নিয়ে সংশয়ে তদন্তকারীরা।

হাফিজ মহম্মদ শাহরুখ হালদার নামের ওই যুবক দক্ষিণ ২৪ পরগণার বাসন্তীর বাসিন্দা। গত বৃহস্পতিবার তিনি কোনও কাজে হুগলি যাওয়ার উদ্দেশে রওনা দিয়েছিলেন। কলকাতা যাওয়ার পথে একদল রামভক্ত তার উপর চড়াও হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

শাহরুখ বলেন, চলন্ত ট্রেনে একদল যুবক ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিচ্ছিলেন। ট্রেন ঢাকুরিয়া থেকে ছেড়ে যাওয়ার পর হঠাৎই ওই দলটির কয়েকজন সদস্য তাকে ‘জয় শ্রীরাম’ বলার জন্য চাপ দেওয়া শুরু করে। কিন্তু তিনি তাতে রাজি না হওয়ায় তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।

তিনি জানান, ট্রেনে কামরা ভরতি লোকের সামনে তাকে মারধর করা হলেও কেউ তার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি। শেষ পর্যন্ত পার্ক সার্কাস স্টেশনে তাকে নামিয়ে দেওয়া হয়।

শাহরুখ বলেন, পার্ক সার্কাস স্টেশনে নামার পর স্থানীয়রা তার সাহায্যে এগিয়ে আসেন। তাদের সাহায্যেই হাসপাতালে যান তিনি। প্রথমে তিনি তপসিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করতে যান। কিন্তু সেখান থেকে তাকে জানানো হয়, এক্ষেত্রে তাকে জিআরপির কাছে অভিযোগ জানাতে হবে।

অন্যদিকে পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবক সামান্য আহত হয়েছিলেন। তাকে চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। পুলিশের অনুমান, ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে অস্বীকার করায় নয়, জায়গা দখল নিয়ে ঝামেলার জেরে চলন্ত ট্রেনে তার উপর হামলা হয়েছে। ঘটনায় আরও কয়েকজন আহত হয়েছে।