খুলনায় একদিনে মৃত্যু ২২

ফাতেহ ডেস্ক:

খুলনার সরকারি-বেসরকারি চারটি হাসপাতালের করোনা ইউনিটে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ২১ জন পজিটিভ ও একজন করোনা উপসর্গের রোগী ছিলেন।

এরআগে, বুধবারও (৭ জুলাই) এ চার হাসপাতালে একদিনে সর্বোচ্চ ২২ জন মারা যান।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, এখানের ২০০ বেডে সকাল ৮টা পর্যন্ত ১৯৩ জন ভর্তি রয়েছেন। রেড জোনে ১২৯ জন পজিটিভ, ইয়োলো জোনে ২৫ জন করোনা উপসর্গের রোগী, আইসিইউতে ১৯ জন পজিটিভ ও এইচডিইউতে ২০ জন পজিটিভ ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন ৩২ জন ও ছাড়পত্র নিয়েছেন ৫১ জন। এ সময়ে মারা গেছেন ৯ জন। এর মধ্যে আট জন পজিটিভ ও একজন করোনা উপসর্গের রোগী ছিলেন।

বেসরকারি গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, সকাল সাড়ে ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালের ১৫০ বেডে ১২৪ জন পজিটিভ রোগী ভর্তি আছেন। নতুন ভর্তি ২১ জন ও ছাড়পত্র নিয়েছেন ২০ জন। আইসিইউতে ভর্তি আছেন ৯ ও এইচডিইউতে ১১ ভর্তি আছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৬২ নমুনা পরীক্ষায় ৪৪ জন পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন। এ সময়ে মারা গেছেন আট জন।

শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ বলেন, সকাল সোয়া ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালের ৪৫ বেডের বিপরীতে ৪৩ জন পজিটিভ রোগী ভর্তি আছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি হয়েছেন চার জন। আর ছাড়পত্র নিয়েছেন একজন। আইসিইউতে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১০ জন। মারা গেছেন তিন জন।

খুলনা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, এখানের ৮০ বেডের বিপরীতে সকাল ৮টা পর্যন্ত ৬৮ জন পজিটিভ রোগী ভর্তি আছেন। এরমধ্যে পুরুষ ৩৩ ও মহিলা ৩৫ রোগী। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৮ ও ছাড়পত্র নিয়েছেন ১৩ জন রোগী। মারা গেছেন দুই জন।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদজ্যাকব জুমার আত্মসমর্পণ, আফ্রিকার নতুন ইতিহাস
পরবর্তি সংবাদপাকিস্তানের গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে দুই ভারতীয় সেনা গ্রেফতার