চীনের দেয়া কিট-পিপিই নিয়ে বিশেষ ফ্লাইট ঢাকায়

ফাতেহ ডেস্ক

চীনের দেয়া টেস্টিং কিট ও চিকিৎসকদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম নিয়ে বিশেষ ফ্লাইট শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে একটি বিশেষ ফ্লাইটে জরুরি এ চিকিৎসা সামগ্রী ঢাকায় আসে।

বিমানবন্দরে চীন দূতাবাসের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এসব সরঞ্জামাদি গ্রহণ করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ। এ সময় চীনা রাষ্ট্রদূত জানান, শিগগিরই করোনা রোগীদের চিকিৎসা সহায়তা দিতে চীনের বিশেষজ্ঞ দল ঢাকায় আসবে। দ্বিতীয় ধাপে আসা চীনের সহায়তার মধ্যে রয়েছে ১০ হাজার করোনা টেস্ট কিট, প্রথম সারির চিকিৎসকদের জন্য ১০ হাজার পারসোনাল প্রোটেকশান ইকুইপমেন্ট বা পিপিই এবং ১ হাজার থার্মোমিটার।

বিমানবন্দরে এক ব্রিফিংয়ে চীনা রাষ্ট্রদূত জানান, করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তা দিতে প্রস্তুত চীন। দ্রুতই পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে প্রত্যাশা করে তিনি বাংলাদেশের জনগণকে আত্মবিশ্বাস ধরে রাখার আহ্বান জানান। অচীরেই অনলাইন ভিত্তিক কেনাবেচার প্রতিষ্ঠান আলিবাব’র দেয়া সহায়তাও ঢাকায় আসবে বলেও জানান চীনা রাষ্ট্রদূত।

এর আগে, গত মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানান, কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের সাথে লড়তে চীন থেকে আসছে বিশেষ উপহার। এই কনসাইনমেন্ট ১০ হাজার টেস্ট কিট, ১০ হাজার মেডিকেল প্রটেক্টিভ ক্লথিং ও এক হাজার ইনফ্রারেড থার্মোমিটার আসছে। তারা ১৫ হাজার সার্জিকাল রেস্পিরেটর বা এন-৯৫ মাস্কও উপহার দেবে। ড. মোমেন বলেন, চীন সরকারের উপহার হিসেবে স্বাধীনতা দিবসে এসব চিকিৎসা সামগ্রী ঢাকায় পৌঁছাবে।

এর আগে, গত ফেব্রুয়ারি মাসে চীন বাংলাদেশকে উন্নত প্রযুক্তির ৫০০ করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ কিট উপহার দেয়।

-এ