পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানিতে ভারতের নিষেধাজ্ঞার ২৩ দিন পেরিয়ে গেছে। কিন্তু এ সময়ে অন্য দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করেও বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না বাংলাদেশ। তাই পেঁয়াজ রফতানি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে ভারতের প্রতি আহ্বান জানানোর পর ইতিবাচক সাড়া পেয়েছে সরকার। খবর এনডিটিভি।

ভারত সফররত বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য সম্মেলনের উদ্বোধনী দিনে ভারতের প্রতি এ আহ্বান জানান। তখন ভারতের পেঁয়াজ রফতানিতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী। তার অভিযোগ, ভারত সরকার যখন পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছিল তখন তারা এমন পদক্ষেপ সম্পর্কে না আমাদের জানালেও অন্তত ইঙ্গিত তো দিতে পারতো।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নয়াদিল্লি হঠাৎ করে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়ায় পেঁয়াজের চাহিদা পূরণ করা কঠিন হয়ে পড়েছে বাংলাদেশের জন্য।

দুই দেশের ওই বাণিজ্য সম্মেলনে তিনি উল্লেখ করেছেন, ভারত থেকে আমদানি করে বাংলাদেশ তার মোট পেঁয়াজের চাহিদার ৮০ শতাংশ পূরণ করে। তাই ভারত রফতানি নিষেধাজ্ঞা জারি করায় বাংলাদেশকে চড়া মূল্যে তুরস্ক ও মিসর থেকে পেঁয়াজ আমদানি করতে হচ্ছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, তিনি ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে এ নিয়ে আলোচনা করেছেন। মন্ত্রী তাকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, মহারাষ্ট্র রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন শেষ হলেই পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করবে তার সরকার।

প্রসঙ্গত, ভারতে সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজ উৎপাদন হয় মহারাষ্ট্রে। গত ২১ অক্টোবর মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানা প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুথফেরত জরিপ বলছে রাজ্য দুটিতে ফের সরকার গঠন করতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। আগামীকাল ২৪ অক্টোবর ভোটের ফল প্রকাশ হবে।