মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় স্কুলশিক্ষকের হাত ভেঙ্গে দিলো সন্ত্রাসীরা

ফাতেহ ডেস্ক

অবৈধ মাদক ব্যবসার প্রতিবাদ করায় সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন এক স্কুলশিক্ষক।

আহত ওই স্কুল শিক্ষকের নাম ইলিয়াছ হোসাইন। তিনি আশাশুনি উপজেলার কলিমাখালি গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মাদ গাজীর ছেলে। আহত শিক্ষক হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে আশাশুনি থানায় শনিবার (১৭ই মে) সন্ধ্যায় ৩ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

দায়েরকৃত অভিযোগে মাড়িয়ালা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের আহত সহকারি শিক্ষক ইলিয়াছ হোসাইন বলেছেন, আসামি আশাশুনি উপজেলার কলিমাখালি গ্রামের নুরুল ইসলাম গাজীর ছেলে সাইফুল ইসলাম, তার স্ত্রী পারুল ও বহিরাগত মাদক ব্যবসায়ী সেলিম গত ১২ই মে সন্ধ্যায় ৬টার দিকে উক্ত শিক্ষকের বাড়ির সামনে প্রাইমারি স্কুল এলাকায় রাস্তার উপর আসামিরা ওঁৎ পেতে থাকে। এসময় বাদী বাড়ি থেকে বাইরে যাওয়ার সময় আসামিরা তাকে পথরোধ করে অবৈধ অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মারপিট শুরু করে। আসামিরা বলে, তোর কারণে আমরা আমাদের মাদক ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছি। আমরা ব্যবসা করতে পারছি না। তার জন্যে তুই ৫ লাখ টাকা চাঁদা দিবি। বাদী চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় আসামিরা তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করে। এসময় উক্ত শিক্ষকের বাম হাতের কব্জি থেকে ভেঙ্গে যায়।

তাৎক্ষনিকভাবে স্থানীয়সহ পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসক ও পরে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে। এঘটনায় হাসপাতালের ভর্তি ফরমে উল্লেখিত হাড়ভাঙ্গা জখমের কাগজপত্রসহ শনিবার আশাশুনি থানায় অভিযোগ দাখিল করেছেন।

-এ

বিজ্ঞাপন