হিজাব নয়, আমেরিকার অর্থ জব্দের কারণে বিপদে জনগণ: তালেবান

তালেবান সরকারের উপ মুখপাত্র আনামুল্লাহ সামানগানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

হিজাব সম্পর্কে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের বক্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে আফগানিস্তানের তালেবান প্রশাসন। তালেবান সরকারের উপ মুখপাত্র আনামুল্লাহ সামানগানি বলেছেন, হিজাব আফগান জনগণের অভ্যন্তরীণ, ধর্মীয় ও মতাদর্শগত বিষয়। এটি নিয়ে বাইরের কারো বক্তব্য দেয়ার প্রয়োজন নেই।

সম্প্রতি নারীদের পোশাক সম্পর্কে নয়া বিধিমালা ঘোষণা করেছে তালেবান প্রশাসন। এ সম্পর্কে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নেড প্রাইস গতকাল ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তালেবান যদি আফগানিস্তানের নারীদের ওপর বলপ্রয়োগ করত চায় তাহলে ওয়াশিংটন তালেবান প্রশাসনের ওপর চাপ প্রয়োগের হাতিয়ারগুলো ব্যবহার করবে।

এর প্রতিক্রিয়ায় সামানগানি বলেন, আফগান জনগণের জন্য পোশাকের ধরন নির্ধারণ করার অধিকার তালেবান প্রশাসনের রয়েছে এবং এটি সম্পূর্ণ এদেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

তালেবান উপ মুখপাত্র বলেন, এসব বক্তব্য না দিয়ে আমেরিকার উচিত তার হাতে জব্দ আফগান জনগণের অর্থ ফেরত দেয়া। তিনি বলেন, আফগান জনগণের জন্য যদি আমেরিকার মন সত্যিই কেঁদে থাকে তাহলে তাদের অর্থ যেন আমেরিকা ফরত দেয়। কারণ, ওই অর্থের অভাবে আফগান জনগণের জীবন বিপদের মুখে পড়েছ; হিজাবের কারণে নয়।

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা গ্রহণ করার পর বিভিন্ন কাল্পনিক অজুহাতে দেশটির ১,০০০ কোটি (১০ বিলিয়ান) ডলার অর্থ জব্দ করেছে মার্কিন সরকার।

আগের সংবাদজাতীয় পরিচয়পত্রে পেশার তালিকায় ‘স্থপতি’ অন্তর্ভুক্ত হলো
পরবর্তি সংবাদ৬৫ বছরের বেশি বয়সীরা এবছর হজ্ব করতে পারবে না