১৪ কেন্দ্রে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে: সালাহউদ্দিন

ফাতেহ ডেস্ক:

ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ অভিযোগ করেছেন, ‘১৪টি ভোটকেন্দ্রে আমাদের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। শুধু এই জায়গায় দেখলাম দু-একজন এজেন্ট আছে। আমার ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও শারীরিক অবস্থা ভালো না বিধায় আমি সব জায়গা পর্যবেক্ষণ করে দেখতে পারিনি।’ আজ শনিবার সকালে যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে নির্বাচন পর্যবেক্ষণকালে সালাহউদ্দিন আহমেদ এ কথা বলেন।

সালাহউদ্দিন আহমেদ অভিযোগ করে বলেন, ‘আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু যাত্রাবাড়ী এলাকার ভোটার না হয়েও কীভাবে সে ভোট দিল, সেটা আমার বোধগম্য নয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থী মিথ্যা কথা বলেছে, সে গেণ্ডারিয়ার ভোটার।’

সালাহউদ্দিন আহমেদ আরো অভিযোগ করেন, ‘৬০ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায় বিএনপির এজেন্টদের প্রবেশ করতে বাধা দেওয়া হয়েছে। এজেন্টদের বিভিন্নভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে, আবার কোথাও কোথাও তাঁদের কাছ থেকে মোবাইল, টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে।’

সালাহউদ্দিন বলেন, ‘এই সরকারের আমলে কোনোভাবে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। আমি নির্বাচন কমিশনকে বারবার বলেছি, তারা আমার অভিযোগগুলো আমলে নেয়নি। আমাদের কাছে তথ্য আছে, কোথায় কোন কেন্দ্রে কার নেতৃত্বে বিএনপির ভোটারদের এবং এজেন্টের প্রবেশ করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। সবে ভোট শুরু হয়েছে, বিস্তারিত এ বিষয়ে পরে বলতে পারব।’

এক প্রশ্নের জবাবে সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমি নির্বাচন বর্জন করব না, তবে এ নির্বাচন যদি সুষ্ঠু না হয়, এখান থেকে সরকার পতন ও নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু হবে।’

বিজ্ঞাপন