২০২০ সালে রোহিঙ্গাদের জন্য অর্থ সাহায্যের পরিকল্পনা তৈরির কাজ শুরু

২০২০ সালে রোহিঙ্গাদের জন্য অর্থ সাহায্যের পরিকল্পনা তৈরির কাজ শুরু

ফাতেহ ডেস্ক :

২০১৮ ও ২০১৯ সালের মতো সামনের বছরে রোহিঙ্গাদের জন্য অর্থ সাহায্যের পরিকল্পনা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ কী চায়, জাতিসংঘকে তা অবহিত করা হয়েছে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে জড়িত মন্ত্রণালয়, এজেন্সি, জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা, দেশি ও বিদেশি এনজিও, স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিসহ প্রায় ১৫০ প্রতিনিধির সঙ্গে কক্সবাজারে গত সপ্তাহে জাতীয় টাস্কফোর্সের বৈঠকে সামনের বছরে রোহিঙ্গাদের জন্য তহবিল সংগ্রহ নিয়ে আলোচনা হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘সামনের বছর জেআরপিতে কী কী জিনিসের কথা থাকবে সেটির বিষয়েও আমরা জাতিসংঘকে অবহিত করেছি এবং এগুলো না থাকলে তহবিল সংগ্রহে আমাদের সাহায্যের পরিমাণ যে কমে যাবে, তা জানিয়ে দিয়েছি।’

সরকারের ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘জেআরপিতে রোহিঙ্গাদের উদ্বাস্তু হিসেবে উল্লেখ করা যাবে না। মিয়ানমারে জাতিসংঘ কী করছে, সেখানে তারা চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে, রাখাইনের পরিস্থিতি কী, ওখানে মিয়ানমার সরকার কী করছে—সেগুলোর বিস্তারিত বর্ণনা যেন জেআরপিতে উল্লেখ থাকে, আমরা সেসবও চাই। জাতিসংঘ কীভাবে তহবিল খরচ করছে, তার বিস্তারিত বর্ণনা এবারের জেআরপিতে উল্লেখ করবে বলেও তারা জানিয়েছে।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ কীভাবে রোহিঙ্গাদের সাহায্য করছে সেটির বিস্তারিত বর্ণনা, স্থানীয় জনগণকে কীভাবে এবং কোন খাতে সহায়তা দেওয়া হবে তার বিস্তারিত বর্ণনা, ভাষানচরে স্থানান্তরের বিষয় উল্লেখ ও প্রত্যাবাসনসহ অন্যান্য বিষয়গুলোর সুনির্দিষ্ট উল্লেখ চায় সরকার।