ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিব ফিলিস্তিন যেতে হলে লাগবে ইসরাইলের অনুমতি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মার্কিন কংগ্রেসের আলোচিত দুই মুসলিম সদস্য ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিব ফিলিস্তিন সফরে যেতে পারবেন কি-না, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত দেবেন ইহুদিবাদী অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। তার অনুমোদন পেলেই কেবল ফিলিস্তিন সফরে যেতে পারবেন মার্কিন কংগ্রেস সদস্য ইলহান ওমর ও রাশিদা তালিব। ইসরাইলের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।

ইসরাইলি সংবাদপত্র হারেৎজ এক রিপোর্টে বলেছে, কিছুদিন আগে ইসরাইল একটি আইন পাস করেছে যাতে ইসরাইলী আগ্রাসন বিরোধী সংগঠন বিডিএস মুভমেন্টের সদস্যদের পশ্চিম তীরে প্রবেশে নিষিদ্ধ করেছে। সেই একই আইন অনুসারে যুক্তরাষ্ট্রের দুই মুসলিম এমপি রাশিদা তালিব ও ইলহান ওমরের ফিলিস্তিন সফর নিষিদ্ধ করতে পারেন।

সোমালি বংশোদ্ভূত ইলহান ও ফিলিস্তিনি বংশোদ্ভূত রাশিদা যুক্তরাষ্ট্রের এবারের মধ্যবর্তী নির্বাচনে জিতেছেন পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটের সদস্য হিসেবে। তারা দুজনেই বিরোধী দল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি থেকে নির্বাচিত হয়েছে। নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই তারা দুজন বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছেন। ফিলিস্তিনে ইসরাইলের আগ্রাসন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসনে ইহুদি লবির প্রভাব ও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের অভিবাসীবিরোধী কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে বেশ কয়েকবার বিভিন্ন পক্ষের আক্রমণাত্মক বক্তব্যের শিকার হয়েছেন। সর্বশেষ গত সপ্তাহেও ডোনল্ড ট্রাম্প অভিবাসী এমপিদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার কথা বলে পার্লামেন্টে নিন্দার সম্মুখীন হয়েছে।

হারেৎজ পত্রিকা বলেছেন, বিডিএস মুভমেন্টের সদস্যদের নিষিদ্ধ করে যে আইনটি পাস করা হয়েছে সে আইনের ভিত্তিতেই ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহ সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন যে ওই দুই মার্কিন মুসলিম এমপি ফিলিস্তিনি সফর করতে পারবেন কি না।

ইলহান ওমার সম্প্রতি জিউস ইনসাইডার পত্রিকাকে জানিয়েছেন, কিছুদিনের মধ্যেই তিনি ও রাশিদা তালিব ফিলিস্তিন সফর করতে চান। তিনি বলেন, ‘সেখানে এখনো আধিপত্যবাদী শাসন চলছে বলে আমরা শুনতে পাচ্ছি’।