তাবরেজ হত্যার দায় থেকে মুক্তি অভিযুক্তদের, মামলা ঘুরিয়ে দিলো পুলিশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের ঝাড়খন্ডে পিটিয়ে মুসলিম যুবক তাবরেজ আনসারিকে হত্যার দায় থেকে পুলিশ মুক্তি দিয়েছে অভিযুক্ত ১১ জনকে। এ বছর জুনে তাবরেজ আনসারিকে নির্যাতন করা হয়। তাকে হিন্দুত্ববাদী স্লোগান দিতে বাধ্য করা হয়। তাকে নির্দয়ভাবে প্রহার করে হত্যার দৃশ্য ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। কিন্তু ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে উদ্ধৃত করে মঙ্গলবার স্ক্রল ডট ইন জানায়, এ ঘটনায় অভিযুক্ত ওইসব ব্যক্তির অভিযোগ প্রত্যাহার করেছে ভারতের পুলিশ। তাতে বলা হয়েছে তাবরেজ আনসারির মৃত্যু হয়েছে হার্ট অ্যাটাকে।

শুরুতে তাবরেজকে হত্যার বিষয়ে পুলিশের দু’জন কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

ওই সময় একটি ভিডিওতে দেখা যায় ২৪ বছর বয়সী তাবরেজ চিৎকার করছেন। সহায়তা চেয়ে আর্তনাদ করছেন। কিন্তু ঝাড়খন্ডের উত্তেজিত জনতা তাকে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দিতে বাধ্য করছে। তার বিরুদ্ধে গ্রামবাসীর অভিযোগ ছিল চুরির। তাকে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটির সঙ্গে বেঁধে ফেলা হয়। প্রহার করা হয় ১২ ঘন্টা। এরপর পুলিশ গিয়ে তাকে সেরাইকেলাতে তাদের জিম্মায় নেয়।

তাৎক্ষণিকভাবে তাকে হাসপাতালে না নিয়ে রাখা হয় থানায়। এরপর তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তিনি মারা যান। তাকে হাসপাতালে নেয়ার পরিবর্তে পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে তাকে প্রথমে জেলে নিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তাবরেজের স্ত্রী।