‘দুই মুসলিম রাষ্ট্র তুরস্কের অর্থনীতি ধ্বংসের চেষ্টা চালাচ্ছে’

তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাওলুদ যাওউশ উগলু বলেছেন, সম্প্রতি তুরস্কের মুদ্রাকে লক্ষ্য  করে যে অর্থনৈতিক আক্রমণ শানানো হয়েছে, তাতে দুই মুসলিম রাষ্ট্রও শরীক ছিল। এতে ডলারের বিপরীতে তুরস্কের মুদ্রা লিরার মূল্যের অবনমন ঘটেছে। স্থানীয় এক টেলিভিশন চ্যানেলের সাথে সাক্ষাৎকারে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই কথা বলেন।

তবে ঐ দুই রাষ্ট্রের একটি সৌদি কিনা, এই বিষয়ে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হন নি।

‘ আমরা যে পদক্ষেপগুলো গ্রহণ করেছি, তার মাধ্যমে এই আক্রমণ অনেকটাই ঠেকানো গেছে। তুরস্ককে অর্থনৈতিকভাবে ধরাশায়ী করার তাদের চেষ্টা সফল হয়নি।’

‘ ২০১৬ সালের ব্যর্থ অভ্যুত্থান চেষ্টার পর এই অর্থনৈতিক হামলা আসলো, যে হামলায় ডলারের বিপরীতে লিরার মূল্যের অবনমনের চেষ্টা করা হয়েছে। এতে অনেক বড় বড় অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান জড়িত আছে। কয়েকটা রাষ্ট্রও জড়িত আছে, যার মধ্যে আছে দুটি মুসলিম রাষ্ট্র ও ন্যাটোর কয়েক সদস্য।’

পর্যবেক্ষকদের মতে সৌদি ও আরব আমিরাত  এই অর্থনৈতিক হামলার পেছনে থাকতে পারে। ২০১৬ সালের ব্যর্থ অভ্যুত্থানেও তাদের অঘোষিত সমর্থন ছিল। আগামী মাসে অনুষ্ঠিতব্য আগাম নির্বাচন উপলক্ষে জনমত প্রভাবিত করার জন্য এই আক্রমণ শানানো হয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদজুন মাসেই প্রাথমিকে আরও ১২ হাজার শিক্ষক নিয়োগ
পরবর্তি সংবাদ‘ভারত স্থিতিশীল থাকলে বাংলাদেশ স্থিতিশীল থাকবে’