পেগাসাস নিয়ে খোদ ইজরাইলে তদন্ত শুরু, বেনেট বললেন ‘গুরুতর’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইসরায়েলের প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপের তৈরি স্পাইওয়্যার পেগাসাস ব্যবহার করে বিভিন্ন দেশে আড়ি পাতা হয়েছে। এবার খবর এল, এ স্পাইওয়্যার খোদ ইসরায়েলেও ব্যবহার করা হয়েছে। আর এ ঘটনার জেরে তদন্ত শুরু হচ্ছে দেশটিতে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ইসরায়েলে আড়ি পাতার ঘটনার তদন্তে একটি কমিশন গঠন করা হবে।

ইসরায়েলে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আড়ি পাতার সফটওয়্যার ব্যবহারের ঘটনায় প্রথম খবর প্রকাশ করে হিব্রু ভাষায় প্রকাশিত ইসরায়েলের সংবাদপত্র কেলকালিস্ট। এ প্রতিবেদনে বলা হয়, এ পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহার করে নজরদারি করা হয়েছে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের। এ তালিকায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ছেলে আভনের নেতানিয়াহুও রয়েছেন। এ ছাড়া শীর্ষ সরকারি কর্মকর্তা সাংবাদিক ও অধিকারকর্মীদের ফোনেও আড়ি পাতা হয়েছে। এ ছাড়া নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে করা দুর্নীতির মামলার সাক্ষীর ওপর নজরদারি করা হয়েছে পেগাসাস ব্যবহার করে।

এ আড়ি পাতা প্রসঙ্গে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট বলেন, খবরে যা প্রকাশিত হয়েছে, তা যদি সত্য হয়, তবে এটা ‘খুবই গুরুতর’। অ্যাটর্নি জেনারেল গ্যালি বাহারভ-মারিয়ার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলব আমি।

আড়ি পাতার সফটওয়্যার তৈরি করে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার মুখে রয়েছে এনএসও গ্রুপ। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার বৈধ লাইসেন্সের মাধ্যমে পেগাসাস ব্যবহার করছে।

২০১৯ সাল থেকে সীমিত পরিসরে এ হ্যাকিং প্রযুক্তি বিক্রি শুরু করে। প্রাথমিক অবস্থায় বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোই ছিল এর প্রধান ক্রেতা। সফটওয়্যারটির উদ্ভাবক প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসবাদ নিয়ে অনুসন্ধান ও বৈশ্বিক অপরাধ প্রতিরোধের মাধ্যমে হাজারো মানুষকে রক্ষায় সরকারি সংস্থাকে সহায়তা করে তারা।

আগের সংবাদঢাবির ভর্তি পরীক্ষায় ‘ঘ-ইউনিট’ আর থাকছে না
পরবর্তি সংবাদআবারও পানির দাম ৩৮% বাড়াতে চায় ঢাকা ওয়াসা!