বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে তুর্কি দরবেশ সাঈদ নুরসির জীবনীগ্রন্থ

ফাতেহ ডেস্ক :

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০-এ পাওয়া যাচ্ছে তুরস্কের বিখ্যাত আলেম ও আধ্যাত্মিক ব্যক্তিত্ব বদিউজ্জামান সাঈদ নুরসি’র জীবনীগ্রন্থ। ‘বদিউজ্জামান সাইদ নুরসি এবং রিসালায়ে নুর’ নামক অনবদ্য এ বইটি লিখেছেন মুহাম্মাদ ইরফান হাওলাদার। গার্ডিয়ান পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত বইটি বইমেলার ২০১ ও ২০২ নম্বর স্টলে পরিবেশন করছে মাতৃভাষা প্রকাশনী।

বইটি নিয়ে লেখক মুহাম্মাদ ইরফান বলেন, বদিউজ্জামান সাঈদ নুরসি যিনি তাঁর সারাটি জীবন শরিয়াহ প্রতিষ্ঠা, মানুষের ঈমান রক্ষা, কুরআনের খেদমত এবং আল্লাহর পথে সংগ্রামে কাটিয়েছেন। ২৮ বছরের নির্বাসন, কারাবাস ও জুলুম-নির্যাতনের জীবন বরণ করে নিয়েছিলেন হাসিমুখে। ক্লান্তিহীন ছুটে চলেছেন জনপদ থেকে জনপদে, বিপদকে মেনে নিয়েছেন মুখ বুজে এবং সত্যের জন্য লড়েছেন হিম্মতের সাথে। তিনি একাই তুরস্ককে আন্দোলিত করেছিলেন, নাড়িয়ে দিয়েছিলে জাহেলিয়াতের শক্ত পাটাতন। জাহেলিয়াতের ভরা যৌবনেও যিনি সত্যের মশাল বইয়ে নিয়েছেন বিচক্ষণতার সাথে। জোয়ার দেখেও যিনি এতটুকু হীনমন্যতায় ভোগেননি; ভবিষ্যত মুক্তির রাজপথ নির্মাণ করেছেন দক্ষ শ্রমিক হয়ে। কামালবাদের (কামাল পাশা আতাতুর্ক) উত্তাল তরঙ্গের মধ্যে স্বপ্ন দেখেছিলেন ভবিষ্যৎ বিজয়ের।

লেখক আরও বলেন, সাঈদ নুরসি আমাদের দেখিয়েছেন কিভাবে একটি ইসলামি সমাজে নেমে আসা অন্ধকারকে কুরআনের আলো দিয়ে বিদূরিত করতে হয়। আরও দেখিয়েছেন ভালোবাসা দিয়ে কিভাবে মানুষকে আল্লাহর পথে আনতে হয়। তিনি ছিলেন একজন বিজ্ঞ আলেম। দেশের জন্য লড়াকু সৈনিক, ইসলামের খাদেম, শরিয়তের অতন্দ্র প্রহরী। কুরআনের জন্য সারাজীবন কারাপ্রকোষ্ঠে কাটিয়ে দেয়া এক উস্তাদ, যিনি অন্ধকার কারা প্রকোষ্ঠকেই বানিয়েছিলেন আলোর মাদরাসা। উম্মাহর প্রেরনার এই বাতিঘরকে যাতে বাংলাদেশের মানুষ আরও গভীরভাবে উপলব্ধি করতে পারে সে জন্যই বইটি লেখা।