‘বিবর্তনবাদের পাঠ মুসলিম শিক্ষার্থীদেরকে নাস্তিক্যবাদের দিকে ঠেলে দিচ্ছে’

ফাতেহ ডেস্ক

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা নূর হোছাইন কাসেমী বলেছেন, ডারউইনের বিবর্তনবাদ প্রকৃত অর্থে একটি কুফরি মতবাদ। বানর থেকে মানুষের সৃষ্টি হয়েছে, মানুষের কোনো সৃষ্টিকর্তা নেই–এ-জাতীয় মতবাদ বিশ্বাস করলে কারো ঈমান থাকবে না। বাংলাদেশের মতো মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ একটি দেশে নবম-দশম শ্রেণী থেকে মাস্টার্স পর্যন্ত পাঠ্যপুস্তকে এ রকম কুফরি মতবাদের জায়গা কিভাবে হলো তা খুবই দুশ্চিন্তার বিষয়।

আল্লামা কাসেমী বলেন, মূলত পাঠ্যপুস্তকে ডারউইনের এই কুফরি মতবাদকে অর্ন্তভুক্ত করে মুসলিম শিক্ষার্থীদেরকে নাস্তিক্যবাদের দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।

গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাব অডিটরিয়ামে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরীর কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান বক্তার বক্তব্যে আল্লামা কাসেমী এ সব কথা বলেন।

দলের যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর সভাপতি মাওলানা মনজুরুল ইসলাম আফেন্দীর সভাপতিত্বে এবং মহানগর জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজিপুরী, মুফতী বশীরুল হাসান খাদিমানী, মাওলানা নূর মুহাম্মদ কাসেমী ও মাওলানা মাহবুবুল আলম-এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মাওলানা আবদুর রব ইউসুফী, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন যাকারিয়া, মুফতী মনির হোসাইন কাসেমী, সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ছানাউল্লাহ মাহমূদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা নাজমুল হাসান, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আফজল হোসাইন রাহমানী, মুফতী নাসির উদ্দীন খান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা জযনুল আবেদীন, অফিস সম্পাদক মাওলানা আবদুর গফফার ছয়ঘরী, যুব জমিয়তের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ইসহাক কামাল ও ছাত্র জমিয়ত সভাপতি মাওলানা এখলাসুর রহমান রিয়াদসহ মহানগরীর দায়িত্বশীল ও বিভিন্ন থানা থেকে আগত কাউন্সিলরগণ।

কাউন্সিলে আগামী ৩ বছর মেয়াদের জন্য মাওরানা মনজুরুল ইসলাম আফেন্দীকে সভাপতি ও মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরীকে সাধারণ সম্পাদক, মাওলানা মুফতী নূর মুহাম্মদ কাসেমীকে সাংগঠনিক সম্পাদক, মুফতী ইমরানুল বারী সিরাজীকে প্রচার সম্পাদক, মাওলানা সাইফুদ্দীন ইউসুফ ফাহিমকে যুব বিষয়ক সম্পাদক ও মুহাম্মদুল্লাহ কাসেমীকে করে ১১২ সদস্য বিশিষ্ট ঢাকা মহানগর জমিয়তের কমিটি ঘোষণা করা হয়। পরে কাউন্সিলে ৭ দফা প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়।