রোহিঙ্গাদের ফেরাতে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক: এপ্রিলে প্রত্যাবাসন শুরুর সম্ভাবনা

ফাতেহ ডেস্ক:

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে চীনের নেতৃত্বে ত্রিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ত্রিপক্ষীয় বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন জানান, আগামী এপ্রিলে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হতে পারে।

এর আগে, রোহিঙ্গাদের ফেরাতে চীনের মধ্যস্থতায় ত্রিপক্ষীয় ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে সচিব জানান, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সংকটের দ্রুত সমাধানে একমত বাংলাদেশ-চীন ও মিয়ানমার। সচিব জানান, প্রথম ব্যাচের প্রত্যাবাসন হবে গ্রাম বা এলাকাভিত্তিক। প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে মিয়ানমার স্বাগত জানাবে বলেও জানান সচিব।

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে গঠিত ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান মাসুব বিন মোমেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নির্যাতন ও নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশ পালিয়ে আসে প্রায় ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা। এছাড়া আরও আগে থেকে বাংলাদেশের আশ্রয়ে ছিলো আরও ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার সরকার বাংলাদেশের সঙ্গে চুক্তি করলেও সেই চুক্তি এখনও আলোর মুখ দেখিনি। এ বিষয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিছুদিন আগেও বলেন, ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের চুক্তি হলেও এবং এ বিষয়ে আলোচনা চললেও মিয়ানমারের আন্তরিকতার অভাবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হচ্ছে না।’

এদিকে, ২০১৯ সালে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দু’দফা উদ্যোগ নেয়া হলেও নিরাপত্তার অজুহাতে নিজ দেশে ফিরতে রাজি হয়নি রোহিঙ্গারা।

বিজ্ঞাপন