হুইল চেয়ারে করেই বিক্ষোভে এলেন ‘তিনি’

ফাতেহ ডেস্ক:

নবির প্রতি ভালোবাসার অনন্য দৃষ্টান্ত উপস্থাপন করেছেন কুমিল্লা মাদরাসায়ে আশরাফিয়ার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক হাফেজ মাওলানা মুফতী শামছুল ইসলাম জিলানী। পা ভাঙা সত্ত্বেও হুইল চেয়ারে করে অংশ নিয়েছেন নবিকে অবমাননার প্রতিবাদে।

ফ্রান্সে হজরত মুহাম্মদ সা. এর কার্টুন অবমাননাকরভাবে প্রচারের প্রতিবাদে গতকাল দুপুরে কুমিল্লা জেলা কওমি মাদ্রাসা সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলে এভাবেই অংশ নেন তিনি। মিছিলে সবার সামনে তিনি। কয়েকজনেকে তার হুইল চেয়ার টেনে নিতে দেখা গেছে।

মুফতী শামছুল ইসলাম জিলানী ইফতা পড়েছেন পাকিস্তানের দারুল উলুম করাচিতে। তিনি ছিলেন আল্লামা তাকি উসমানির বিশেষ শাগরেদ। বর্তমানে মাদরাসা পরিচালনার পাশাপাশি খতিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন কুমিল্লা কান্দিরপারের কুবা মসজিদে।

কওমি মাদ্রাসা সংগঠনের বিক্ষোভ মিছিলটি বুধবার নগরীর কান্দিরপাড় টাউনহল মাঠ থেকে বের হয়ে জিলা স্কুল রোড, শিল্পকলা মোড়, ফৌজদারী, পুলিশ লাইন, ঝাউতলা, বাদুরতলা হয়ে পুনরায় টাউনহল মাঠে গিয়ে বিশেষ মোনাজাতের মাধ্যমে শেষ হয়। দোয়া পরিচালনা করেন মুফতী শামছুল ইসলাম জিলানী।

মিছিলে বক্তারা বলেন, অনতিবিলম্বে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে আল্লাহর রাসূল সা. এর অবমাননাকর ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রত্যাহারসহ দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করে ক্ষমা চাইতে হবে। অন্যথায় বিশ্ব মুসলিম ফ্রান্স ও ফ্রান্সের পণ্য বয়কট করা অব্যাহত রাখবে। সাথে বাংলাদেশের সরকারের কাছে ফ্রান্সের এই ন্যাক্কারজনক কাজের প্রতিবাদ করা এবং ফ্রান্সের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার আহ্বান জানান। বিক্ষোভ মিছিল থেকে ম্যাক্রোঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেয়া হয়।

কুমিল্লা জেলা কওমি মাদ্রাসা সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা আবদুল কুদ্দুসের নেতৃত্বে হাজারো মানুষ ওই মিছিলে অংশগ্রহণ করেন। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা মুনীর হোসাইন, মুফতী শামছুল ইসলাম জিলানী, মাওলানা মুনীরুল ইসলাম কাসেমী, মাওলানা মুফীজুল ইসলাম, হাফেজ ফরিদ উদ্দিন ও হাফেজ জামিল আহমদসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

বিজ্ঞাপন