সোমালিয়ার নিরাপত্তা-চৌকিতে আল-শাবাবের আত্মঘাতী হামলা : নিহত ১৩

আল-কায়েদার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সশস্ত্র সংগঠন আল-শাবাবের সদস্যরা সোমালিয়ার রাজধানী মুগাদিসুর প্রেসিডেন্ট-প্রাসাদের কাছে দু’টি ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে।

সোমালিয়ান পুলিশ জানিয়েছে, কঠোর নিরাপত্তা-বেষ্টনী ভেদ করে প্রেসিডেন্ট-প্রাসাদ থেকে অর্ধ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত মুগাদিসুর জাতীয় থিয়েটারের বাইরে একটি নিরপত্তা চৌকিতে প্রথম বিস্ফোরণ ঘটে। এর কয়েক মিনিট পরেই সড়কের কাছে দ্বিতীয় শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। ধারাবাহিক এসব বোমা বিস্ফোরণে সোমালিয়ান সেনা সদস্যসহ অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছে।

সোমালিয়ান সেনা কর্মকর্তা মেজর মোহাম্মদ হোসেইন জানিয়েছেন, প্রথম আত্মঘাতী গাড়ি বোমাটি নিরাপত্তা চৌকিতে বিস্ফোরিত হলে পাঁচ সেনা নিহত হয়। এ ছাড়া আরো চার জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে কয়েক জনের অবস্থা গুরুতর।

দ্বিতীয় বোমা বিস্ফোরণের ফলে সৃষ্ট ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে নির্দিষ্টভাবে এখনো কিছু বলা যাচ্ছে না। এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, নিহতদের মধ্যে একজন আইনপ্রণেতা, মুগাদিসুর উপ-মেয়র এবং কর্নেল পদমর্যাদার একজন কর্মকর্তাও রয়েছেন।

দ্বিতীয় বোমা বিস্ফোরণের পর একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন যে তিনি অন্তত দুই ব্যক্তির লাশ দেখতে পেয়েছেন

এদিকে আল-শাবাব জানিয়েছে, প্রথম বোমা বিস্ফোরণের ফলে হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করতে যাওয়া নিরাপত্তা কর্মীদের টার্গেট করে দ্বিতীয় বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়েছে।

সূত্র ঃ পার্স টুডে

 

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদইমরান খান বললেন, বাংলার জনগণকে অধিকার দেওয়া হয়নি
পরবর্তি সংবাদ‘বাংলাদেশের মাটি থেকে প্রতিবেশী দেশে জঙ্গি হামলা হতে দেবো না’ -প্রধানমন্ত্রী