ডা. আফিয়ার বিষয়ে পাকিস্তানের আবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের সাড়া

ওমর ফারুক : যুক্তরাষ্ট্রে বন্দি পাকিস্তানি নিওরো সাইন্টিস্ট ড. আফিয়া সিদ্দিকির ইস্যুতে পাকিস্তানের আহ্বানে সাড়া দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী এলিস ওয়েলস পাকিস্তানকে নিশ্চিত করেছে তারা আফিয়া সিদ্দিকীর বিষয়টি ভেবে দেখছেন।

এদিকে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে পাকিস্তান মার্কিন সরকারের সঙ্গে ডা. আফিয়া সিদ্দিকীর ইস্যুটি পর্যায়ক্রমে তুলে ধরছে। মার্কিন উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী এলিস ওয়েলসের সঙ্গে সাক্ষাতেও বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। মার্কিন সরকার বিষয়টি নিয়ে চিন্তা ভাবনা করার নিশ্চয়তা দিয়েছে।

এর আগে পাকিস্তান সরকার ডা. আফিয়া সিদ্দিকি ইস্যুতে মানবিক বিবেচনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, আফিয়া সিদ্দিকি সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে পাকিস্তানের অবস্থান তুলে ধরা হয়েছে। পাকিস্তান চায় ড. আফিয়ার সবরকম মানবাধিকার যেন রক্ষা করা হয়।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে ড. আফিয়া সিদ্দিকির নামটি বহুল আলোচিত। পাকিস্তানি এই নারীকে আফগানিস্তান থেকে গ্রেফতার করে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বিচার কাজ চালানো এবং বন্দি করে রাখা হয়। তাঁর প্রতি অভিযোগ রয়েছে তিনি আফগানিস্তানে মার্কিন সেনাদের ওপর হামলার সহযোগিতা করেছিলেন।

গতকাল বুধবার যুক্তরাষ্ট্রে বন্দি ৪৬ বছর বয়সী ড. আফিয়া সিদ্দিকি তার মুক্তির জন্য পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সাহায্য চেয়েছিলেন। পাকিস্তানের কন্সুলেট জেনারেল হিউস্টন কারাগারে দেখা করার সময় আফিয়া তার মাধ্যমে ইমরান খানের কাছে একটি চিঠি পাঠান। সেই চিঠিতে তিনি তার মুক্তির জন্য ইমরান খানের কাছে সহযোগিতা চান।

সূত্র : ডেইলি পাকিস্তান।