‘মুবাল্লিগদের’ প্রতিদান ও শাস্তির দাওয়াতও দিতে হবে: কাবার ইমাম

ওমর ফারুক: মসজিদুল হারামের ইমাম ও খতিব শায়খ ডক্টর সালেহ আল তালেব মুবাল্লিগদের (ইসলাম প্রচারক) প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, তারা যেন দাওয়াতের ক্ষেত্রে প্রতিদান এবং শাস্তি দুটিই ব্যাপকভাবে প্রচার করেন।শুক্রবার মসজিদুল হারামে জুমার খুৎবায় তিনি এ কথা বলেন। খবর: উর্দু নিউজ

তিনি বলেন, তারা যেন ভালো কাজের সুসংবাদ এবং মন্দ কাজের ভয়াবহ পরিণতির কথা জন সাধারণের কাছে তুলে ধরেন।

শায়খ ডক্টর সালেহ পবিত্র কুরআনুল কারিমের সূরা ইউসূফ থেকে বয়ান করতে গিয়ে বলেন, এই সূরা নাজিল হয়েছে মক্কা নগরীতে। এতে আল্লাহ রাব্বুল আলামিন একত্ববাদ, কিয়ামত সম্পর্কে আকিদা, জান্নাতের সুসংবাদ, জাহান্নামের ভয়ংকর পরিস্থিতি, রিসালাত, গুনাহগারদের শাস্তি ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করেছেন। যে ব্যক্তি এই সূরা তেলাওয়াত করবে এবং চিন্তা-ভাবনা করবে তার এ বিষয়ে ধারণা হয়ে যাবে- সূরাটি নজিল হয়েছিল ইসলামের প্রাথমিক যুগে। এবং এই সূরা প্রথম নাজিল হওয়া সূরাগুলির একটি। যখন দাওয়াতের কাজ আরম্ভ হয়েছিল। এই সূরা থেকে আমাদের মুবাল্লিগদের জন্য একটি বড় শিক্ষা হলো, যখন আমরা দাওয়াত ও তাবলিগের কাজ করবো তখন শুধু জান্নাতের নেয়ামতরাজি বর্ণনা করলেই চলবে না। পাশাপাশি মানুষকে আল্লাহর ভয় এবং গুনাহের শাস্তি সম্পর্কেও জানাতে হবে।

কাবার ইমাম আরো বলেন, কোরআনুল কারিম সর্বশেষ নবীর সর্বশ্রেষ্ঠ মুজিজা। এই সূরা তার নবুওয়াতের স্বপক্ষে দলিল। তাই আমরা যারা দাওয়াতের ময়দানে কাজ করতে চাই তাদেরকে অবশ্যই এ সূরা থেকে পাথেয় গ্রহণ করতে হবে।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদঅংশগ্রহণমূলক নির্বাচন আওয়ামী লীগের টার্গেট
পরবর্তি সংবাদঅর্থপাচারের বিষয়ে ব্যাংকগুলোকে সতর্ক থাকার নির্দেশ গভর্নরের