সিরিয়ায় শক্তিশালী বিদ্রোহী ঘাটি দারআর পতন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

সিরিয়ার দক্ষিণে আসাদ বাহিনীর অগ্রযাত্রার প্রেক্ষিতে বিদ্রোহীদের পক্ষ থেকে অস্ত্র সমর্পণ করার বিষয়ে সম্মতি জানানো হয়েছে। শুক্রবার দারআর (৬ জুলাই) বিদ্রোহীরা নিশ্চিত করেছে, রাশিয়ার মধ্যস্থতায় হওয়া ওই সমঝোতা অনুযায়ী তারা অস্ত্রবিরতি মেনে নিয়ে ভারি অস্ত্র সমর্পণ করবে। সংবাদ আল জাজিরার।

এই চুক্তি অনুযায়ী, সীমান্ত অঞ্চল আসাদ বাহিনীর কাছে সমর্পণ করতে হবে, পাশাপাশি নাসিব স্থলবন্দরের পরিচালনাও তারা গ্রহণ করবে রাশান মিলিটারি পুলিশের সহায়তায়। একইভাবে আসাদ  বাহিনী দারআ শহরতলীর বেশ কয়েকটি অঞ্চল রাশানদের তত্ত্বাবধায়নে ছেড়ে দিবে, পলায়নকারী দারআর নাগরিকরা সেখানে ফিরে আসতে পারবেন।

চুক্তিতে আরও আছে, আসাদ সেনাবাহিনীর সাথে বিদ্রোহকারী বা আসাদের পক্ষে বাধ্যতামূলক যুদ্ধে অংশগ্রহণে অস্বীকারকারীদের ছয়মাসের ক্ষমা ঘোষণা করা হবে। পাশাপাশি বিদ্রোহীদের কেউ ইদলিব চলে যেতে চাইলে তারও সুযোগ থাকবে।

দারআর নিয়ন্ত্রণ পাওয়ার জন্য বিদ্রোহীদের ওপর প্রচণ্ড হামলা চালানো হয়। এতে এলাকা ছাড়া হয় বহু মানুষ। গত ১৯ জুন আসাদ বাহিনী দারআর নিয়ন্ত্রণ নিতে লড়াই জোরালো করে। এতে করে জর্ডানের অভিমুখে নতুন করে শরণার্থী ঢল শুরু হয়। গত দুই সপ্তাহে সিরিয়ার বিভিন্ন স্থানে বিমান ও স্থল হামলা থেকে বাঁচতে ২ লাখ ৭০ হাজার সিরীয় পালাতে বাধ্য হয়েছে। জাতিসংঘের মতে এদের অর্ধেকই শিশু।

পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, এই পরাজয়ের মাধ্যমে সিরিয়ায় পরিবর্তনের স্বপ্ন আরও ম্লানতর হল। আরও শক্তিশালী হল, আসাদ, ইরান ও রাশান হস্তক্ষেপ।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদমাদকবিরোধী অভিযান: নড়াইলে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১
পরবর্তি সংবাদপ্রধানমন্ত্রী যা বলেন তা করেন: কোটা সংস্কার নিয়ে আইনমন্ত্রী