মাদক ব্যবসায়ী স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে স্ত্রীর আত্মহত্যা

ফাতেহ ডেস্ক

মাদক ব্যবসায়ী স্বামীর অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার এক গৃহবধূ।

রোববার রাতে উপজেলার গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত জরিনা বেগম ওই গ্রামের লিয়াকত আলীর স্ত্রী।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, ১৩-১৪ বছর আগে উপজেলার রামচন্দ্রদী গ্রামের আবু তাহেরের মেয়ের সঙ্গে একই গ্রামের আদু মিয়ার ছেলে লিয়াকত আলীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসারে দুটি সন্তানের জন্ম হয়। এরই মধ্যে তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে ঝগড়া লেগেই থাকতো।

২-৩ বছর আগে লিয়াকত ইয়াবা বিক্রি শুরু করে। মাদক ব্যবসা বিক্রিতে নিষেধ করে স্ত্রী জরিনা। এ নিয়ে প্রতিদিনই জরিনাকে মারধর করতো লিয়াকত। রোববার রাতে স্বামীর অত্যাচার সইতে না পেরে বিষপানে আত্মহত্যা করে জরিনা। ঘটনার পরপরই জরিনার স্বামী ও শাশুড়ি বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে।

জরিনার বাবা আবু তাহের বলেন, আমার মেয়েকে লিয়াকত সবসময়ই মারধর করতো। সারাজীবন তাকে কষ্ট পেতে হয়েছে। অবশেষে মেয়ে জীবন দিয়ে দিলো। আমি লিয়াকতের বিচার চাই।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ওসি মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি বেদনাদায়ক। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব। নিহতের মরদেহ নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।