যুবরাজ অক্ষত, সৌদি মিডিয়ার দাবী

দীর্ঘদিন ধরে জনসম্মুখে না আসায় ইরানি কয়েকটি মিডিয়া সৌদি যুবরাজের নিহত হবার দাবী করে খবর ছাপিয়েছিল।

তবে এসব খবরকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছে সৌদি আরবের সংবাদমাধ্যম ‘আর রিয়াদ’। তারা জানিয়েছে সৌদি যুবরাজ বেঁচে আছেন।

সংবাদমাধ্যমটি তাদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের একটি ছবি প্রকাশ করেছে।

ছবির ক্যাপশনে তারা লিখেছে, সৌদি ক্রাউন প্রিন্স এমবিএস বেঁচে আছেন এবং সুস্থ আছেন।

ওই পোস্টে, গণমাধ্যমে সম্প্রতি তাকে ঘিরে অপপ্রচারেরও সমালোচনা করে কর্তৃপক্ষ। প্রকাশিত ছবিতে মিসরের প্রেসিডেন্ট ফাত্তাহ আল সিসি এবং আবুধাবি ও বাহরাইনের নেতাদের সঙ্গে যুবরাজকে দেখা যায়।

কিন্তু প্রকাশিত ওই ছবিটি কবে, কোথায় তোলা হয়েছে সে বিষয় কোনো তথ্য আর রিয়াদের খবরে উল্লেখ করা হয়নি।

সাধারণত ক্রাউন প্রিন্স প্রায়শ মিডিয়ার সামনে আসেন কিন্তু গত প্রায় একমাস ধরে তিনি জনসমক্ষে আসছেন না।

এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত এপ্রিল মাসের শেষ দিকে যখন সৌদি আরব সফর করেন তখন ক্রাউনপ্রিন্সকে দেখা যায়নি। এসব ব্যাপারে সৌদি কর্তৃপক্ষ কোনো ধরনের বক্তব্য রাখেননি।

২২ এপ্রিল আল জাজিরা ও বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, ২১ এপ্রিল রাতের অন্ধকারে সৌদি আরবের রাজপ্রাসাদে হঠাৎ গোলাগুলির ঘটনায় দেশটিতে অভ্যুত্থান চেষ্টা চলছে বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে।

রাজপ্রাসাদের বাইরে গোলাগুলির একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। বিকট গুলির শব্দ নানা গুঞ্জনের জন্ম দেয়। পরে সৌদি আরবের নিরাপত্তা বাহিনী দাবি করে, গুলি করে একটি ড্রোন নামানো হয়েছে। ড্রোনটি খেলনা বলে চিহ্নিত করেছে তারা।

প্রধানত ইরানি ও রাশান মিডিয়া ভিত্তিক খবর হবার কারণে অনেকেই এই খবরকে উড়িয়ে দিয়েছেন। তবে পর্যবেক্ষকরা মনে করেন, সৌদি রাজপরিবারে এখনো ক্ষমতা সুদৃঢ় করতে পারেন নি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। ফলে নানা রকমের আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদকারাগারে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হচ্ছে মিসরের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মুরসিকে
পরবর্তি সংবাদবাংলাদেশের বেগম যুগ