‘ইয়েমেনের মানবিক পরিস্থিতি বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক’

ফাতেহ ডেস্ক: ইয়েমেনে পশ্চিমা-মদদপুষ্ট সৌদি-মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের নির্বিচার হামলা ও বেসামরিক নাগরিকদের ওপর গণহত্যা প্রায় নিয়মিত ধারায় অব্যাহত রয়েছে।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) ইয়েমেনের হুদায়দায় আস-সুরাহ হাসপাতাল এবং মাছ কেনা-বেচার একটি বাজারে বিমান হামলায় অন্তত ৫২ জন বেসামরিক ইয়েমেনি শহীদ ও শতাধিক আহত হন।

ইয়েমেনি প্রতিরোধ-যোদ্ধা ও জনগণের প্রবল প্রতিরোধের মুখে আগ্রাসী সৌদি-মার্কিন জোট প্রায়ই গণহত্যার উন্মাদনা দেখাচ্ছে। ইয়েমেনের হাসপাতাল, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট, সেতু, বাজার ও কলকারখানাসহ সব ধরনের বেসামরিক অবকাঠামো শিকার হচ্ছে নির্বিচার বোমা বর্ষণের এবং গত কয়েক বছরে দেশটির বেসামরিক অবকাঠামোর বেশিরভাগই সৌদি-মার্কিন জোটের হামলায় ধ্বংস হয়ে গেছে। গণহত্যার সব ধরনের পন্থা প্রয়োগ করছে এই জোট। এ ধরনের অমানবিক হত্যাযজ্ঞ সুস্পষ্ট যুদ্ধ-অপরাধ ও সন্ত্রাসী তৎপরতা ছাড়া অন্য কিছুই নয়।

‘কেয়ার’ ও ‘ডক্টরস উইদআউট বর্ডার’সহ সম্প্রতি ছয়টি বেসরকারি আন্তর্জাতিক সংস্থা বলেছে, ইয়েমেনে মানবীয় পরিস্থিতি বিশ্বের অন্য যে কোনো অঞ্চলের তুলনায় সবচেয়ে বিপজ্জনক পর্যায়ে রয়েছে। দুর্ভিক্ষ, ত্রাণ-সরবরাহের ওপর নিষেধাজ্ঞা বা বাধা ও বেসামরিক জনগণের ওপর সৌদি-মার্কিন জোটের অব্যাহত বোমা-বর্ষণই এ অবস্থার কয়েকটি কারণ। ইয়েমেনের চিকিৎসা-কেন্দ্রগুলোর বেশিরভাগই ধ্বংস হয়ে গেছে বলে এই সংস্থাগুলো জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন
আগের সংবাদকারা হামলা করল মিরপুরে
পরবর্তি সংবাদঝিগাতলায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া